1. almasbepary52@gmail.com : Almas Bepary : Almas Bepary
  2. musafirmostofa2@gmail.com : Nazmul Hossain : Nazmul Hossain
  3. rajkutir17@gmail.com : Abu Sayed : Abu Sayed
  4. admin@ajkalbd.news : Admin : Admin
শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১২:১২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম:
একজন মানবতার ফেরিওয়ালা কচুয়ার পালাখাল বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমির হোসেন মিয়াজী আর নেই মহম্মদপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিভিন্ন মামলায় আটক-৫ বরিশালের গৌরনদী উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত। সোনাইমুড়ীতে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের বিদায় সংবর্ধনা মহম্মদপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এ্যাডঃ আব্দুল মান্নান-ভাইস চেয়ারম্যান ঈদুল শেখ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামীমা হাসান পলি বেসরকারি ভাবে বিজয়ী বানারীপাড়ায় উপজেলা নির্বাচনে ফুটবল মার্কা নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মিনু মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হারিছুর রহমান এর পক্ষে লিফলেট বিতরণ ও গনসংযোগ। ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলায় ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে মাছের পোনা অবমুক্ত গৌরনদী উপজেলা নির্বাচনে হারিছের মোটরসাইকেল,ফরহাদের টিউবওয়েল প্রতীকের গণজোয়ার
ব্রেকিং নিউজ:
একজন মানবতার ফেরিওয়ালা কচুয়ার পালাখাল বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আমির হোসেন মিয়াজী আর নেই মহম্মদপুরে পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিভিন্ন মামলায় আটক-৫ বরিশালের গৌরনদী উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত। সোনাইমুড়ীতে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকদের বিদায় সংবর্ধনা মহম্মদপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে এ্যাডঃ আব্দুল মান্নান-ভাইস চেয়ারম্যান ঈদুল শেখ ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে শামীমা হাসান পলি বেসরকারি ভাবে বিজয়ী বানারীপাড়ায় উপজেলা নির্বাচনে ফুটবল মার্কা নিয়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে মিনু মোটরসাইকেল প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী হারিছুর রহমান এর পক্ষে লিফলেট বিতরণ ও গনসংযোগ। ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলায় ২০২৩-২০২৪ অর্থ বছরে মাছের পোনা অবমুক্ত গৌরনদী উপজেলা নির্বাচনে হারিছের মোটরসাইকেল,ফরহাদের টিউবওয়েল প্রতীকের গণজোয়ার

কে এই মোল্লাহ আব্দুল গনি বারাদার ভবিষ্যতের সম্ভাব্য শাসক আফগানিস্তানের এই তালেবান নেতা

  • প্রকাশিত : বুধবার, ১৮ আগস্ট, ২০২১
  • ৩১৩ বার পড়া হয়েছে


মোল্লাহ আব্দুল গনি বারাদার – তালেবানের রাজনৈতিক শাখার প্রধান
রোববার তালেবানের হাতে কাবুলের পতনের তিনদিনের মধ্যেই আফগানিস্তানে ফিরেছেন সংগঠনের রাজনৈতিক শাখার প্রধান মোল্লাহ আব্দুল গনি বারাদার। কাতারের দোহা থেকে একটি বিশেষ বিমানে করে মঙ্গলবার আরও ক’জন সিনিয়র তালেবান নেতাকে নিয়ে তিনি কান্দাহারে নামেন।
আমেরিকান হামলার মুখে ২০০১ সালে তালেবানের অন্য নেতাদের সাথে প্রথমে কাবুল, তারপর দেশে ছেড়ে পাকিস্তানে পালিয়েছিলেন মি. বারাদার। এরপর সন্ত্রাসের মামলায় আট বছর পাকিস্তানের কারাগারে ছিলেন।

শেষ পর্যন্ত দীর্ঘ ২০ বছরের নির্বাসিত জীবন আর কারাবাসের পর মঙ্গলবার বিজয়ীর বেশে দেশে ফিরেছেন তিনি।
এবং কাবুলে নতুন সরকার যে মূলত তালেবানের সরকার হবে বা সেই সরকারে যে তালেবানেরই একচেটিয়া প্রাধান্য থাকবে – এ নিয়ে তেমন কোন সন্দেহ আর নেই।আফগান তালেবানের উত্থান বাংলাদেশে কী প্রভাব ফেলবে?যদিও হিবাতুল্লাহ আখুনজাদা তালেবানের আমির বা শীর্ষ নেতা, কিন্তু এখন পর্যন্ত যে ইঙ্গিত তা হলো কাবুলে আসন্ন সরকারের প্রধান হতে চলেছেন তার ডেপুটি মোল্লাহ বারাদার।

রাজধানী কাবুলের নিয়ন্ত্রণ তালেবানের হাতে চলে যাওয়ার পর রোববার দোহায় বসে সোশ্যাল মিডিয়াতে ভিডিও স্ট্রিমিংয়ে তালেবানের সাদা পতাকা সামনে নিয়ে মি. বারাদারই যুদ্ধে বিজয়ের ঘোষণা দেন। বিজয়ের এই ঘোষণা কিন্তু হিবাতুল্লাহ আখুনজাদার কাছ থেকে আসেনি।

“আফগানিস্তানে তালেবানের সরকারই আসছে এবং বারাদারই যে তাদের ইসলামী আমিরাতের প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন, এ নিয়ে আমার খুব একটা সন্দেহ নেই,“ বিবিসি বাংলাকে বলেন ড. আসিম ইউসুফজাই।

যুক্তরাষ্ট্রে ইউনিভার্সিটি অব মেরিল্যান্ডের আন্তর্জাতিক সম্পর্কের অধ্যাপক এবং আফগান রাজনীতি ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক ড. ইউসুফজাই মনে করেন, তালেবানের মধ্যে মি. বারাদারই এখন বাকি বিশ্বের কাছে অপেক্ষাকৃত গ্রহণযোগ্য।

তিনি বলেন, তালেবানের বিভিন্ন অংশের সাথেও তার সম্পর্ক ভালো এবং বোঝাপড়া করে জটিলতার মীমাংসা করার ক্ষমতা তার রয়েছে।
গত কয়েকদিন ধরেই গণমাধ্যমে সিংহভাগ বিশ্লেষক সেই সম্ভাবনার কথা বলছেন, যদিও সংগঠনের আমির হিবাতুল্লাহ আখুনজাদা ছাড়াও তালেবানে নেতৃত্বে আরও অন্তত দুজন অত্যন্ত প্রভাবশালী নেতা রয়েছেন – সিরাজউদ্দিন হাক্কানী এবং তালেবানের মূল প্রতিষ্ঠাতা মোল্লাহ ওমরের ছেলে মোল্লাহ ইয়াকুব – যাদেরও ক্ষমতার আকাঙ্ক্ষা রয়েছে বলে বিভিন্ন সময়ে খবর বেরিয়েছে।

তবে, পাকিস্তানের নির্ভরযোগ্য সংবাদপত্র ডনে মঙ্গলবার প্রকাশিত এক বিশ্লেষণে বলা হয়, মি. আখুনজাদাকে ২০১৬ সালে তালেবানের আমির নিয়োগ দেয়া হলেও তার ভূমিকা এবং ভাবমূর্তি এখনও একজন মৃদুভাষী ধর্মীয় নেতার।
ঈদ বা রোজার আগে বিবৃতি প্রকাশ ছাড়া তার কাছে থেকে তেমন কিছু শোনাও যায় না এবং তালেবানের সামরিক বিষয়ের সঙ্গে তার সম্পর্ক খুবই কম বলে ওই নিবন্ধে বলা হয়।
ড. ইউসুফজাইও মনে করেন, তালেবান তাদের ইসলামী আমিরাত প্রতিষ্ঠা করবে এবং মি. আখুনজাদা হয়তো হবেন সেই আমিরাতের ‘সেরিমোনিয়াল চিফ (পোশাকি প্রধান)।

“কিছুটা ইরানের ধাঁচে সরকারের কাঠামো হতে পারে, যদিও ক্ষমতা থাকবে প্রেসিডেন্টের হাতে,“ বলেন তিনি।
কেমন মানুষ মোল্লাহ বারাদার?
কাবুল দখলের পর অনেকের মনেই এই প্রশ্ন উঠেছে যে কেমন মানুষ এই মোল্লাহ আব্দুল গনি বারাদার, কীভাবে তার এই উত্থান? আর ক্ষমতা হাতে পেলে কীভাবে তিনি আফগানিস্তান চালাবেন?
“বারাদার কঠোর হাতে আফগানিস্তান শাসন করবেন। খুব শক্ত মনের মানুষ তিনি, খুবই শক্ত নেতা। দীর্ঘ আট বছর পাকিস্তানের কারাগারে ছিলেন তিনি, কিন্তু তাতে একটুও ভাঙ্গেননি,“ বলছেন ড. ইউসুফজাই।
তরুণ বয়স থেকেই যুদ্ধ করছেন তিনি। প্রথমে সোভিয়েত বাহিনীর বিরুদ্ধে, তারপর সোভিয়েত সৈন্য প্রত্যাহারের পর ছড়িয়ে পড়া গৃহযুদ্ধে অন্য প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে।
দিল্লির তালেবান সংকট, আফগানিস্তানে পট পরিবর্তনে বড় ক্ষতির সামনে ভারত?
২০০১ সালে আফগানিস্তান থেকে তালেবানের উৎখাতের পর পাকিস্তানে এলেও আমেরিকানদের ভয়ে পালিয়ে বেড়িয়েছেন। সেখানে আট বছর কারাভোগও করেছেন তিনি।
ফলে, আপাতদৃষ্টিতে যে মানুষটি এখন ঠাণ্ডা মাথার একজন কূটনীতিক – যিনি দোহায় বসে নানা দেশের সরকারের সাথে আপোষ মীমাংসা করছেন, বিদেশ সফর করছেন – তার আড়ালে রয়েছে দীর্ঘ লড়াইয়ে পোড় খাওয়া শক্ত একজন যোদ্ধা। তালেবানের ভাষায় মুজাহিদীন।

তালেবানের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা
আন্তর্জাতিক পুলিশ সংস্থা ইন্টারপোলের নথি অনুযায়ী, মোল্লাহ বারাদারের জন্ম আফগানিস্তানের উরুযগান প্রদেশের উইটমাক নামে একটি গ্রামে। তবে তিনি বড় হন আফগানিস্তানের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর কান্দাহারে। সেখানেই একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করেছেন।
জাতিগত পশতুন বারাদার ১৯৭০ ও ৮০-র দশকে আফগানিস্তান থেকে সোভিয়েত সৈন্যদের তাড়াতে ১০ বছর যুদ্ধ করেন।

এরপর আফগান গৃহযুদ্ধ চলার সময় মোল্লাহ মোহাম্মদ ওমরের নেতৃত্বে ১৯৯৪ সালে যে কয়েকজন পশতুন মুজাহিদীন তালেবান প্রতিষ্ঠা করেন, মোল্লাহ বারাদার ছিলেন তাদের অন্যতম।

মোল্লাহ ওমরের ডান হাত ছিলেন তিনি। জানা যায়, তাদের মধ্যে আত্মীয়তার সম্পর্কও ছিল। মোল্লাহ ওমরের বোনকে বিয়ে করেন বারাদার।
১৯৯৬ সালে যখন তালেবান কাবুল দখল করে, তখন সেই সরকারে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে ছিলেন মোল্লাহ বারাদার।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
Copyright: 2020 -2023 “দৈনিক আজকাল” রাজ কুঠির একটি অঙ্গ প্রতিষ্ঠান।
Design By Fahim Mahmud