মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৩০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে রমজানপুর বাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মামুন বেপারী। রাজাপুরে মায়ের চোখের সামনে ট্রলি চাপায় শিশু ছাত্রী নিহত মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে নবনির্বাচিত চেহারমান মোঃ মিল্টন ইব্রাহিমের নেতৃত্বে বিজয় র‍্যালী কালকিনির সিডিখানে বোমা বিস্ফোরনে শিশু-নারী আহত কালকিনিতে আনন্দঘন পরিবেশের মধ্যে দিয়ে দৈনিক ঢাকা প্রতিদিন পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন কলাপাড়ায় হাইব্রিডদের দখলে আওয়ামীলীগের ঘর,বিপাকে ত্যাগী নেতাকর্মীরা মাদারীপুরে দুই স্বেচ্ছাসেবী কর্মীকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ উজিরপুরে ডিবির অভিযানে প্রায় দুই কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চিত্র নায়িকা পরিমনির সাথে ডিবি কর্মকর্তার,প্রেম সিসিটিভি ফুটেজ ফাঁস। মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে শেখ কামালে’র জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া মিলাদ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।

সংসার সুখের জন্য স্বামী-স্ত্রী ভূমিকা

আজকাল অনলাইন ডেস্ক।
  • আপডেট: বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১ | খবরটি 
  • ২১৮ বার দেখা হয়েছে

সংসার সুখের হয় রমনীর গুণে- এই কথাটি আংশিক সত্য। মূলত সংসার সুখের হয় স্বামী-স্ত্রী দুজনের গুণেই। কারণ, সংসার বিষয়টি মোটেও সহজ নয় এবং দাম্পত্যে সুখ ধরে রাখাটাও বেশ কঠিন। তাইতো কখনো অস্থিরতা, কখনো সম্পর্কে ভর করে ক্লান্তি আবার কখনোবা চলে আসে একঘেয়েমি। তবে এসব হলে সমাধানও রয়েছে হাতের মুঠোয়। দাম্পত্যে পরিস্থিতি যতই কঠিন হয়ে উঠুক না কেন, তা ঠিক করার সুযোগও থাকে যথেষ্ট। দাম্পত্যে অস্থিরতা, একঘেয়েমি কাটাতে কী করবেন, জেনে নিন।

1)পরস্পর কথা বলুন:
জটিলতা যতই হোক না কেন, সমাধান করার ইচ্ছা পোষণ করুন। দুজনে চুপচাপ না থেকে অভিমান ভুলে কথা বলুন। কোনো কিছু জানার থাকলে প্রশ্ন করুন। সংসারের নানান চিন্তায় অনেক ক্ষেত্রেই আর নিজেদের মনের কথা বলা হয়ে ওঠে না। মাঝেমধ্যে একে অপরের সঙ্গে মন খুলে গল্প করাও জরুরি। এতে সম্পর্কের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

2)কর্তব্য ভাগ করে নিন:
সংসারে খরচের শেষ নেই, হাজারো খরচ। বিশেষ করে সন্তানদের দেখভাল, বাড়ির বড়দের প্রতি কর্তব্যের মাঝে নিজেদের শখ পূরণ করার সুযোগ হয় না। কিন্তু একে অপরের শখের প্রতি যত্ন নেওয়া উচিত। সুবিধা মত ছোটখাটো উপহার কিনে উপহার দিন স্ত্রীকে কিংবা স্বামীকে। আপনি যে তার মনের কথা বোঝেন, সেটুকু জানাতে পারেন সে সব উপহারের মাধ্যমে। দুজনের জন্য দুজন সময় রাখুন সপ্তাহে অন্তত কয়েক ঘণ্টা রাখুন শুধু নিজেদের জন্য। যে সব কাজ একে অপরের সঙ্গে করতে ভালো লাগে, তা যেনো কখনো বন্ধ না হয়ে যায়। যেমন- একসঙ্গে সিনেমা দেখা, গান শোনা হতে পারে। আবার কোনো বন্ধু বা বন্ধুদের সাথে প্রাণ খুলে আড্ডাও হতে পারে। বন্ধুরা স্বামী বা স্ত্রী দুই জনেরই হতে পারে।

3)একে অন্যের প্রশংসা করুন:
দাম্পত্যে তো একসঙ্গেই সবসময় কাটবে। দুজনেই সংসারের দায়িত্ব ভাগ করে নেবেন। কিন্তু প্রতিদিনের রান্না, সংসার খরচের হিসাবের মতো সাধারণ কাজ করতেও অনেক পরিশ্রম হয়। সেই সব দায়িত্ব পালন করার জন্য একে অপরের মাঝেমধ্যে প্রশংসা করুন। তাতে দম্পতির একে অপরের প্রতি ভরসা বাড়ে। আস্থার ভীত মজবুত হয়। এতে দৈনন্দিন দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে দুজনেরই উৎসাহ বাড়ে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *