বুধবার, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৫:০৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনামঃ
রাজাপুরে মায়ের চোখের সামনে ট্রলি চাপায় শিশু ছাত্রী নিহত মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে নবনির্বাচিত চেহারমান মোঃ মিল্টন ইব্রাহিমের নেতৃত্বে বিজয় র‍্যালী কালকিনির সিডিখানে বোমা বিস্ফোরনে শিশু-নারী আহত কালকিনিতে আনন্দঘন পরিবেশের মধ্যে দিয়ে দৈনিক ঢাকা প্রতিদিন পত্রিকার প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন কলাপাড়ায় হাইব্রিডদের দখলে আওয়ামীলীগের ঘর,বিপাকে ত্যাগী নেতাকর্মীরা মাদারীপুরে দুই স্বেচ্ছাসেবী কর্মীকে নিয়ে গভীর ষড়যন্ত্রের অভিযোগ উজিরপুরে ডিবির অভিযানে প্রায় দুই কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার চিত্র নায়িকা পরিমনির সাথে ডিবি কর্মকর্তার,প্রেম সিসিটিভি ফুটেজ ফাঁস। মিঠাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের উদ্যোগে শেখ কামালে’র জন্মদিন উপলক্ষে দোয়া মিলাদ ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত। বরযাত্রীর নৌকায় ব’জ্রাঘাতে ১৭ জনের প্রাণহানি

পদ্মা সেতুকে ঘিরে পরিবহন কাউন্টার বাণিজ্যের অভিযোগ।

স্টাফ রিপোর্টার।
  • আপডেট: শনিবার, ২১ মে, ২০২২ | খবরটি 
  • ২৩ বার দেখা হয়েছে

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে সামনে রেখে বরিশালের দুইজন পরিবহন শ্রমিক নেতার বিরুদ্ধে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে নিয়ম বহির্ভূতভাবে কাউন্টার বাণিজ্যের অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ওই দুই শ্রমিক নেতার অর্থ বাণিজ্যের কারণে ইতোমধ্যে স্থানীয় পর্যায়ে হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনাও ঘটেছে। যা নিয়ে পূর্ণরায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। ইকবাল হোসেন হাওলাদার নামের এক ভূক্তভোগী অভিযোগ করে বলেন, আমাকে ২০০৮ সালের ৩০ জুন বরিশাল-ঢাকা মহাসড়কের উজিরপুর উপজেলার সানুহার বাসস্ট্যান্ডে ইলিশ পরিবহনের কমিশন কাউন্টার বরাদ্দ দিয়েছেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলী আকবর। সেই থেকে চলতি বছরের ১ মে পর্যন্ত কোম্পানির সকল নিয়ম মেনে আমি ও আমার অংশীদার সৈকত হাওলাদার কমিশন কাউন্টার চালিয়ে আসছি।
অভিযোগ করে তিনি আরও বলেন, অতিসস্প্রতি এ রুটে ইলিশ পরিবহনের এসি বাস চালু হওয়ায় জেলা বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক এবং শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক পরিবহন কোম্পানির সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে জিম্মি করে নতুন করে কমিশন কাউন্টার বাণিজ্য শুরু করেন। ফলে সানুহার বাসস্ট্যান্ডে ইলিশ পরিবহনের কাউন্টারটি চলতি মাসের ১ মে পর্যন্ত ইকবাল ও সৈকত হাওলাদারের পরিচালনায় থাকলেও ৩ মে থেকে স্থানীয় সালেক হোসেন ও মোস্তাফিজুর রহমান জেলা বাস মালিক গ্রুপের প্রভাব বিস্তার করে ইলিশ পরিবহনের যাত্রীদের টিকেট কাটা শুরু করেন।
একইসাথে তারা নতুন কাউন্টার কমিশনের পরিচালনার দায়িত্ব পেয়েছেন দাবী করে পুরাতন কাউন্টার পরিচালনায় থাকা স্থানীয় যুবলীগ নেতা সৈকত হাওলাদার ও তার বাবা ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সভাপতি খোকন হাওলাদারকে যাত্রী টিকেট কাটতে বাঁধা প্রদান করেন। এনিয়ে গত ৫ মে দুই গ্রুপের মধ্যে হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনাও ঘটেছে।
এ ব্যাপারে জেলা বাস মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক ও শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদকের ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তারা ফোন রিসিফ না করায় কোন বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে ইলিশ পরিবহনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আলী আকবর জানান, বিষয়টি আমার জানা নেই। এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *